জিয়াউল হক পলাশঃ পরিচালক থেকে অভিনেতা!

জিয়াউল হক পলাশ ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন পরিচালক হিসেবে। পরিচালনা দিয়েই দর্শকের মনে জায়গা করে নিতে চেয়েছিলেন তিনি। পরিচালক থেকে অভিনেতা হওয়ার সেই গল্প ঢাকা পোস্টকে শুনিয়েছেন পলাশ।

‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ খ্যাত এই অভিনেতা বলেন, ‘মিডিয়াতে আমার আসা পরিচালক হওয়ার জন্য। ছোটবেলায় নাখালপাড়ায় বড় হয়েছি। ২০০৯ সালে এসএসসিরও আগে থেকে মোস্তফা সরয়ার ফারুকী ভাইকে দেখতাম। তিনি তখন নাখালপাড়ায় ‘৪২০’ নাটকের নিয়মিত শুটিং করতেন। সে নাটকের শুটিং এবং সরয়ার ভাইকে ওভাবে দেখতে দেখতেই পরিচালক হওয়ার স্বপ্ন দেখি।’

পলাশ বলেন, ‘তখন ইচ্ছা ছিল ইন্টারমিডিয়েটের পর বসের (মোস্তফা সরয়ার ফারুকী) সঙ্গে কাজ করব। পরীক্ষার পর উনার সঙ্গে যুক্ত হই। দীর্ঘদিন আমি উনার সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেছি। এরপর সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেছি ইশতিয়াক আহমেদ রুমেল ভাইয়ের সঙ্গে। সে সময় ‘কারসাজি’ নামে একটি সিরিয়ালে রোমেল ভাই এক-দুটি দৃশ্য আমাকে দিয়ে অভিনয় করিয়েছিলেন। সেটা এতটা ফোকাস ছিল না।’

তিনি জানান, এরপর নিজেই যখন পরিচালনা করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন তখনই পরিচয় হয় কাজল আরেফিন অমির সঙ্গে। অমি তার ‘ট্যাটু’ নাটকে তাকে অভিনেতা বানিয়ে দেন। সেখান থেকেই মূলত মানুষ অভিনেতা পলাশকে চিনতে শুরু করে। ‘ট্যাটু’র সূত্র ধরেই মূলত অভিনেতা পলাশের আজকের অবস্থান। এর বাইরেও পলাশ অভিনয় করেছেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকী (নগদের একটি বিজ্ঞাপন), শিহাব শাহীন, আদনান আল রাজীব (ইউটিউমার) প্রমুখের মতো গুণী নির্মাতার সঙ্গে।

অভিনয়ে এত জনপ্রিয়তা পেলেও নিজের পরিচালনা সত্তাকেও একটু ভোলেননি নোয়াখালীর সুনাইমুড়িতে জন্ম নেওয়া পলাশ। ২০১৮ সালে তিনি নির্মাণ করেন নিজের পরিচালনায় প্রথম নাটক ‘ফ্রেন্ডস উইথ বেনিফিট’। ২০১৯ সালে ‘সারপ্রাইজ এবং ২০২০ সালে ‘ঘরে ফেরা’ নির্মাণ করেও দর্শকের প্রশংসা কুড়ান। আসছে ঈদকে সামনে রেখে পলাশ নির্মাণ করেছেন নিজের চতুর্থ নাটক ‘একটুখানি’। যেখানে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন দেশের জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী তাহসান ও তানজিন তিশা।

পলাশ বলেন, ‘অভিনেতা হিসেবে পরিচিতি পেলেও নিজের ভেতর আমি একজন পরিচালক। অভিনেতা হিসেবে অন্য নির্মাতাদের গল্পে মানুষকে আনন্দ দিচ্ছি, মানুষের ভালোবাসা পাচ্ছি। কিন্তু পরিচালনা আমার স্বপ্নের জায়গা। পরিচালক সত্তাটাকে বাঁচিয়ে রাখতেও পরিশ্রম করে যাচ্ছি। অভিনয়ে পর বাকি সময়টা পরিচালনাতেই দিই। গল্পের বই পড়ি, স্ক্রিপ্ট রেডি করি, ফিল্ম নিয়ে স্টাডি করি।’

তিনি আরও বললেন, “মানুষ যেহেতু আমার অভিনয়টা গ্রহণ করেছে এটা চালিয়ে যাবো। তবে ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’-এ কাবিলা বা নোয়াখালীর চরিত্রে যে অভিনয় করেছি সেভাবে অন্য কোনো নাটকে হাজির হতে চাই না। আমি চাই এই চরিত্রটি এখানেই স্পেশাল থাকুক। অন্যান্য নাটকে অন্যভাবেই নিজেকে উপস্থাপন করতে চাই। পাশাপাশি নিজের ভাবনাগুলোকে পরিচালনার মাধ্যামে মানুষকে দেখাতে চাই।’

About admin

Check Also

কালো ক্রপ টপ আর কালো স্কার্টে ভাইরাল মোনালিসা

কলকাতায় জন্ম হলেও। নিজের স্বপ্ন পূরণ করার জন্য মুম্বাইয়ে চলে যান। সেখানে দীর্ঘ সাধনার পর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *