আমার বিয়ে অবৈধ! নুসরাতের এমন বক্তব্যে নিখিলের প্রতিক্রিয়া

নুসরতের বিস্ফোরক বিবৃতির পর এবার মুখ খুললেন নিখিল জৈন। ‘কলকাতা ২৪x৭’ এর পক্ষ থেকে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। তখনই নিজের বক্তব্য জানান নিখিল।

এই প্রশ্নের সম্মুখীন হয়ে নিখিল জানান, তিনি ইতিমধ্যেই দেওয়ানী আদালতে নুসরতের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। আর তা সদ্য ঘটা ঘটনা নয়, গত এপ্রিলে তিনি আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। এই মামলা আপাতত আদালতের বিচারাধীন অবস্থায় রয়েছে। নতুন করে তাই নুসরতের বিবৃতির উপর ভিত্তি করে তিনি কোনো মন্তব্য করতে চান না।

গত কয়েক দিন ধরে নুসরত জাহানের মা হওয়ার খবরে চাঞ্চল্য টলিপাড়ায়। আগত সন্তানের পিতৃপরিচয় কী সেই প্রশ্নই এখন লোকমুখে। নিখিল জৈন নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন এই সন্তানের পিতা তিনি নন। গত ছয় মাস ধরে তিনি এবং নুসরত আলাদা থাকছেন। নুসরতের সঙ্গে তাঁর দীর্ঘ দিন কোন যোগাযোগ নেই আর থাকবেও না।

এরই মধ্যে আজ সকালে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন অভিনেত্রী এবং সাংসদ নুসরত জাহান তাঁর এবং নিখিলের সম্পর্কের ব্যাপারে। অভিনেত্রী জানান তাঁদের বিয়েটা আসলে বৈধই নয় যে বিবাহবিচ্ছেদ ঘটবে।

নুসরত নিখিলের বিয়ে হয়েছিল তুরস্কে। তুরস্কের বিবাহ আইন অনুসারে এই অনুষ্ঠান অবৈধ। উপরন্তু হিন্দু-মুসলিম বিবাহের ক্ষেত্রে বিশেষ বিবাহ আইন অনুসারে বিয়ে করা উচিত তা এক্ষেত্রে প্রয়োগ করা হয়নি। আইনের চোখে এই বিয়ে বৈধ যখন নয় তখন বিবাহ বিচ্ছেদের কথা আসে না। এতদিন ধরে নিখিলের সঙ্গে তিনি লিভ ইন করছিলেন। তাদের ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছে অনেকদিন হলো। কিন্তু তিনি এটা নিয়ে কোন কথা বলতে চাইনি কারণ তিনি তার ব্যক্তিগত জীবনটা ওপেন করে দিতে চাননি।

অর্থনৈতিকভাবে ভার বহন করা নিয়ে অভিনেত্রী বলেছেন, “আমি আমার নিজের যাবতীয় খরচ নিজে চালাই, অন্য কেউ আমার খরচ বহন করে এই কথা সত্য নয়। এমনকি আমি আমার পরিবার এবং আমার বোনের পড়াশোনার খরচ নিজেই চালাই। আমার প্রয়োজন পড়ে না অন্য কারুর ক্রেডিট কার্ড আমার কাছে রেখে দেওয়ার। সময় এলে এর যোগ্য প্রমান আমি দেব।”

ভাবতে অবাক লাগে আজ যে সম্পর্কের এতটা তিক্ত অবস্থা গত বছর লকডাউন এর সময় তাদের সম্পর্কের মিষ্টতা মুগ্ধ করেছিল নেটিজেনদের।

About admin

Check Also

কালো ক্রপ টপ আর কালো স্কার্টে ভাইরাল মোনালিসা

কলকাতায় জন্ম হলেও। নিজের স্বপ্ন পূরণ করার জন্য মুম্বাইয়ে চলে যান। সেখানে দীর্ঘ সাধনার পর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *